পুজোয় পোশাক নির্বাচনে রইল দারুন কিছু টিপস

সামনেই পুজো। ইতিমধ্যেই পুজোর কেনাকাটা শুরু করে দিয়েছেন অনেকেই। শপিং মল থেকে শাড়ির দোকানে ক্রেতাদের ভিড়। আর পুরুষদের তুলনায় তো মহিলাদের জামাকাপড়ের অপশন সবসময়েই বেশি। ফলে, কেনাকাটা করতে গিয়ে বেশ সমস্যায় পড়েন তাঁরা। কোনটা ছেড়ে কোনটা কিনবেন? কোন পোশাক কিনলে আপনাকে ট্রেন্ডি ও স্টাইলিশ লাগবে? জানতে হলে মাথায় রাখুন এই আটটি পয়েন্ট

১) পুজোর শপিংয়ে যাওয়ার আগে নিশ্চিত হন আপনার পোশাকের মাপের বিষয়ে। অতিরিক্ত টাইট বা ঢিলে, পোশাক সঠিকভাবে ফিট না হলেই কিন্তু স্টাইলের দফারফা। তাছাড়া বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রে পোশাকের সাইজও আলাদা হয়। অনলাইন কেনাকাটা করার সময়ে সেই দিকটি মাথায় রাখুন। দোকানে কেনার সময়ে অবশ্যই ট্রায়াল দিয়ে দেখে নিন।

২) চলতি বছরে মহিলাদের ফ্যাশানে ট্রেন্ড ক্রপ টপ আর হাই ওয়েস্ট জিন্স। হাই ওয়েস্ট জিন্স সহজেই পরা যায়। আর আপনার পছন্দ অনুযায়ী নির্বাচন করুন ক্রপ টপের লেঙ্গথ। সঙ্গে পরতে পারেন স্টিলেটোস। তবে, প্যান্ডেল হপিংয়ের প্ল্যান থাকলে পড়ুন ট্রেন্ডি স্নিকার্স।

৩) জিন্সের ক্ষেত্রে এখন ট্রেন্ড রিপড জিন্স। কালো বা ডার্ক ডেনিম রঙের স্লিম ফিট পড়তে পারেন। আবার হালকা শেডের উপর ঢিলে ফিটের বয়ফ্রেন্ড জিন্সও কিনতে পারেন। তাছাড়া জিন্সের দুইপাশে ট্র্যাকসুটের মতো স্ট্রাইপসও বেশ ট্রেন্ডি। একটু অন্যরকম লুক চাইলে কিনতে পারেন ডাঙ্গরিও। অ্যাকসেসরাইজ করতে পারেন সরু বেল্ট দিয়ে।

৪) ওয়ান পিসও এখন ফ্যাশানে ইন। নি-লেঙ্গথের ওয়ান পিস পরতেই পারেন। রঙের দিক থেকে বাছতে পারেন বটল গ্রিন, আকাশী, পিচ। তাছাড়া ব্ল্যাক বা হোয়াইট তো সবসময়ই ফ্যাশানে ইন। একটু অন্যরকম লুকস চাইলে নিতে পারেন ফ্লোরাল প্রিন্ট। প্লে-ফুল লুকের জন্য পড়তে পারেন সাদা স্নিকার্সের সঙ্গে। কিংবা নবমীর ডিনারে পরুন আপনার প্রিয় হিলস্-এর সঙ্গে।

৫) ব্যাগি টিজ, বা ওভারসাইজড টি এখন বেশ জনপ্রিয়। আমাদের আবহাওয়ায় আরামদায়কও বটে। ফুল স্লিভ বা হাফ স্লিভের দু-এক সাইজের বড় টি কিনতে পারেন। জিন্সের সঙ্গে টাক ইন করে পরতে পারেন। রঙের ক্ষেত্রে বাছতে পারেন, সাদা, কালো, হলুদ, গেরুয়া ইত্যাদি।

৬) গত কয়েক বছর ধরে ক্রমেই বাড়ছে হ্যান্ডলুমের শাড়ির জনপ্রিয়তা। শুধু পুজো নয়, পুজোর পরে অফিসে বা ক্যাজুয়াল অনুষ্ঠানেও পরতে পারবেন এই ধরনের শাড়ি। থ্রি কোয়ার্টার স্লিভ ব্লাউজের সঙ্গে পরুন। লুক সম্পূর্ণ করতে পরুন জাঙ্ক জুয়েলারি। গড়িয়াহাট, হাতিবাগান ইত্যাদি মার্কেটে ঘুরলেই পেয়ে যাবেন নান ধরনের জাঙ্ক জুয়েলারী।

শাড়ির রঙের ক্ষেত্রে বাছতে পারেন হালকা প্যাস্টেল শেডস। সেক্ষেত্রে ফ্লোরাল প্রিন্টের ব্লাউজের সঙ্গে কমপ্লিট করুন আপনার লুক। আর অষ্টমীর অঞ্জলীতে বা ভাসানে একটা লাল পাড় সাদা শাড়ি তো মাস্ট।

৭) শর্ট কুর্তি ও পালাজোও বেশ জনপ্রিয় লুক এখন। প্যান্ডেল হপিং থেকে কলেজ গোয়িং, সবক্ষেত্রেই আপনার সঙ্গী হতে পারে এই ক্যাজুয়াল লুক। থ্রি কোয়ার্টার হাতার শর্ট কুর্তির সঙ্গে পরুন পালাজো। দিনের বেলা পরতে পারেন উজ্জ্বল রঙের শর্ট কুর্তির সঙ্গে হালকা রঙের বা সাদা পালাজো। রাতের প্যান্ডেল হপিংয়ের জন্য পড়ুন একটু গর্জাস কাজের কালো বা অফ হোয়াইট কুর্তি।

৮) সব শেষে আসি জুতোর কথায়। কারণ আপনার জুতোই কমপ্লিট করবে আপনার লুক। এখন ইন ফ্যাশান বড় চাঙ্কি ডিজাইনের স্পোর্টি স্নিকার্স। সাদা, কালো কিংবা আপনার পছন্দের রঙে কিনুন স্নিকার্স। হিলস কেনার ক্ষেত্রে কিনুন ভাল ব্র্যান্ডের সঠিক সাইজ। কেনার আগে পরে বেশ কিছুক্ষণ হেঁটে দেখে নিন। হিল পরার অভ্যাস না থাকলে বেশি উঁচু হিল এড়িয়ে যাওয়াই ভাল। তাছাড়া স্পোর্টি স্লিপার্সও এখন ইন ফ্যাশান।

পুজোয় অবশ্যই করবেন

ফ্যাব্রিক ভেবেচিন্তে বাছুন। পুজোর মেজাজ বুঝে হ্যান্ডলুম বা কটনের দিকে গেলেই ভাল।

একটু ভারী চেহারা যাদের তাঁরা অবশ্যই বডি শেপার পরে পোশাক পরুন।

রোগারা হাল্কা শেডে আর মোটারা ডার্ক শেড পরুন।

পোশাকের আগে সবচেয়ে জরুরি ফিটেড লঁজারি পরা। সেদিকে প্লিজ নজর রাখুন।

পুজোর সময় দৌড়ঝাঁপ থাকে। তাই প্রচুর জল খান

নিজের পছন্দমতো সুগন্ধি, লিপ বাম, নুড লিপ্সটিক আর কাজল রাখুন।

পুজোয় অবশ্যই করবেন না

অতিরিক্ত মেক আপ

সেলিব্রিটিদের কপি করা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *