মজাদার চিংড়ি মাছের ১০ টি ভিন্নধর্মী রেসিপি একসাথে

১। চিংড়ি মাছের মালাইকারি

উপকরণ

বড় চিংড়ি ১ কেজি, সবুজ কাঁচা মরিচ ৫ টি, হলুদ গুঁড়ো সিকি চা-চামচ, মরিচ গুঁড়ো ১ চা-চামচ, লবণ আধা চা-চামচ অথবা স্বাদ অনুযায়ী, চিনি ১ চা-চামচ, নারকেলের দুধ ২ কাপ, জিরা বাটা ১ চা-চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, ধনেগুঁড়ো সিকি চা-চামচ, পেঁয়াজ কুচি কাপ, সয়াবিন তেল কাপ, ৩-৪ টি এলাচ, ২-৩ টি দারুচিনি।

প্রণালি

ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে সামান্য লবণ ও হলুদ মাখিয়ে মাছগুলো ভেজে তেল ছেঁকে উঠিয়ে রাখুন। মাছ ভাজা একই তেলে পেঁয়াজ কুচি বাদামি করে হলুদ গুঁড়ো, মরিচ গুঁড়ো, লবণ, জিরা বাটা, আদা বাটা, ধনেগুঁড়ো ও ১ কাপ নারকেলের দুধ দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে নিন। তারপর মাছ গুলো ডেলে দিয়ে কিছুক্ষণ নারুন এবং বাকি ১ কাপ নারকেলের দুধ দিয়ে দিন। এখন চিনি, এলাচ,দারুচিনি, সবুজ কাঁচা মরিচ দিয়ে চুলার আঁচ সামান্য বাড়িয়ে নেড়ে ঢেকে দিন। পাঁচ মিনিট পর ঢাকনা খুলে নাড়ুন। পাঁচ মিনিট পর ঢাকনা খুলে যখন মাছের গায়ে ঝোল মাখা মাখা হবে তখন নামিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

২। স্পাইসি প্রন কারি

উপকরণ

খোসা ছাড়ানো চিংড়ি ২৫০ গ্রাম, পিঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, জিরা বাটা ১/২ চা চামচ, মরিচের গুড়া ১/২ চা চামচ, কাঁচামরিচ ৫টি (আস্ত), সয়া সস ১ টেবিল চামচ, ওয়েস্টার সস ১ টেবিল চামচ, টমেটো সস ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণ মত, অলিভ ওয়েল অথবা সাদা তেল ৩ টেবিল চামচ।

প্রনালি

ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে তাতে আগে থেকে বেছে রাখা চিংড়ি ও সব বাটা মসলা গুলো দিয়ে দিন। এরপর সয়া সস ,ওয়েস্টার সস, টমেটো সস, লবণ দিয়ে একটু কষান। এবার ১/২ কাপ পানি ও কাঁচামরিচ দিয়ে ডেকে দিন। মশলা মাখা মাখা হলে নামিয়ে ফ্রাইড রাইছ এর সাথে পরিবেশন করুন।

৩। ক্রিস্পি চিংড়ি

উপকরণ

চিংড়ি ১ কাপ, ওয়েস্টার সস ১ টেবিল চামচ, টেম্পুরা পাউডার ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো, সাদা গোলমরিচ গুঁড়া সামান্য, শুকনা মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, রসুন বাটা আধা চা-চামচ, পানি পরিমাণমতো, ভাজার জন্য তেল প্রয়োজনমতো।

প্রণালি

চিংড়ির লেজ রেখে মাথা ও খোসা বাদ দিয়ে ১ টেবিল চামচ ওয়েস্টার সস দিয়ে মাখিয়ে রাখতে হবে। টেম্পুরা পাউডার, মরিচ গুঁড়া, লবণ, ১ চা-চামচ গোলমরিচ গুঁড়া, রসুন বাটা ও পরিমাণমতো পানি দিয়ে ব্যাটার তৈরি করে নিতে হবে। তাতে চিংড়ি ডুবিয়ে ডুবোতেলে ভেজে ওঠাতে হবে।

৪। প্রন তন্দুরি

উপকরণ

চিংড়ি মাছ ৫০০ গ্রাম, ঘি বা মাখন ২ চা চামচ,টক দই ২ চা চামচ,আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, দারচিনি গুঁড়া অল্প, বড় এলাচ ১ টি, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, শুকনা মরিচের গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ স্বাদ মতো, চিনি- সামান্য

প্রণালি

চিংড়ি মাছ পরিষ্কার করে ধুয়ে টক দই ও লবণ দিয়ে মাখিয়ে নিন। এবার একে একে আদা বাটা , রসুন বাটা , জিরা গুঁড়া , ধনে গুঁড়া , শুকনা মরিচের গুঁড়া , এলাচ দানা ও সামান্য চিনি দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে এক ঘণ্টা ম্যারিনেট হতে দিন ।এক ঘণ্টা পর বাঁশের কাঠিতে চিংড়ি মাছগুলো গেঁথে অল্প ঘি মাখিয়ে প্যানে ভেজে নিন। দুই দিকই ভাল মতো ভাজবেন। তবে চিংড়ি মাছ বেশি রান্না করলে শক্ত হয়ে যায়। তন্দুর করা হয়ে গেলে নামিয়ে নিয়ে লেবুর রস ছড়িয়ে সালাদের সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন। ওভেনে করতে চাইলে ১৮০ ডিগ্রিতে প্রি হিট করে ১০-১৫ মিনিট গ্রিল করে নিন।

৫। লতি চিংড়ি

যা লাগবে : মাঝারি সাইজের গোটা চিংড়ি ও ছোট চিংড়ি মাছ বাটা, বেবি টমেটো, নারিকেল বাটা, চিনি, সাদা তেল, কলাপাতা লাগবে থ্রাইপ্যানের সমান করে দুইটা গোল করে কাটা। কচুর লতি, লবণ, হলুদ দিয়ে সিদ্ধ করে রাখা।

যেভাবে করবেন : কলার পাতায় তেল ব্রাশ করে নেব। থ্রাইপ্যানের ওপর কলাপাতা বিছিয়ে দেব। তারপর লতিগুলো দেব। তার ওপর তেল দিয়ে ভেজে রাখা ছড়িয়ে দেব, নারিকেল ও চিংড়ি বাটা, চিনি, বেবি টমেটো ও লবণ দিয়ে মাখিয়ে লতির ওপর বিছিয়ে দেব। আরেকটা কলারপাতা তেল ব্রাশ করে ওপর থেকে ঢেকে দিতে হবে, মৃদু আচে ২০ মি. রেখে নামিয়ে পরিবেশন করুন। উপরে নারিকেল কোরা ও ভেজে রাখা চিংড়ি মাছ দিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে লতি চিংড়ি। সব কিছু পরিমাণ মতো নেবেন।

৬। বাগদা চিংড়ির কালিয়া

যেভাবে করব : চিংড়ি মাছ বড় খোসা ছাড়িয়ে নেব। লবণ, হলুদ দিয়ে মাখিয়ে নেব। সরষের তেল দিয়ে গরম করে ভাজা ভাজা করে নেব। এবার তেলে একটু চিনি দিয়ে পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা ও রসুন বাটা দিয়ে টমেটো পিউরি জিরাগুড়া, লবণ, মরিচ বাটা মাখিয়ে তেলে দিয়ে দেব। কষিয়ে নিয়ে ফেটানো দই ও কাজু ১ চামচ, ১ চামচ কিসমিস দিয়ে নারিকেলের দুধ দিয়ে ভাজা চিংড়ি দিয়ে দেব। শুকনা মরিচগুঁড়া সামান্য জায়াফল ও জয়ত্রিগুঁড়া দেব। তেল উঠে এলে নামিয়ে কাজু বাদাম দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার বাগদা চিংড়ির কালিয়া। ভাত ও পোলাউ-এর সঙ্গে খাওয়া যায়।

৭। মুচমুচে চিংড়ি

যা লাগবে : বেশন, চালের গুঁড়া, চিনি রসুন ও আদা কুচি, খাবর সোডা সামান্য, লবণ বাটা, গুল মরিচগুঁড়া, আলু সিদ্ধ, খোসা ছাড়া বড় চিংড়ি ও ছোট চিংড়ি বাটা হলুদ গুঁড়া।

যেভাবে করবেন : প্রথমে মাখন দিয়ে রসুন কুচি, আদা কুচি, পেঁয়াজ কুচি দিয়ে গোটা চিংড়ি হলুদ গুঁড়া গুলমরিচ গুঁড়া দিয়ে নাড়াচাড়া করে চিংড়ি মাছ তুলে নেব। চিংড়ি মাছ বাটা ও আলু সিদ্ধ ভেজে রাখা মসলার মধ্যে লবণ ও চিনি খাবার সোডা দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নেব। প্লেটে চালের গুঁড়া বেশন একটু খাবার রং সব মিশিয়ে নেব। মাছ আলুর মসলা হাতে নিয়ে ভেতরে ১টা চিংড়ি মাছ সামান্য মাখন দিয়ে বেশন ও চালের গুঁড়ার মধ্যে ডাভিয়ে নেব। এবং লেজটা বাহিরে থাকবে। গরম তেলে ভেজে নিতে হবে। চাটনির সঙ্গে পরিবেশন করুণ।

৮। ধনেপাতা গলদা চিংড়ি

যা লাগবে : চিংড়ি, হলুদ, পেয়াজ কুঁচি, আদা, রসুন কাঁচামরিচ, দই, চিনি, কাজু বাদাম বাটা, লবণ ধনেপাতা, কুচি ও গরম মসলা গুঁড়া।

যেভাবে করবেন : লবণ ও হলুদ দিয়ে ভেজে রাখা মাছ তুলে নেব। তেলে পেঁয়াজ কুচি ভেজে তার ভেতর পেঁয়াজ বাটা দিয়ে আদা, রসুন, অল্প করে কাঁচামরিচ দিয়ে ঢেকে দেব। দই, চিনি, কাঁচামরিচ বাটা, কাজুবাদাম বাটা, লবণ ও হলুদ দিয়ে ভেজে রাখা চিংড়ি মাছ দিয়ে পানি দিয়ে ঢেকে দেব। হালকা আঁচে ধনেপাতা কুচি ও গরম মসলা গুঁড়া দিয়ে দেব। হয়ে যাবে ধনে পাতা কষাা গলদা চিংড়ি।

৯। সরষে চিংড়ি

যা লাগবে : চিংড়ি, কোড়ানো নারকেল, পেঁয়াজ বাটা, সরষে বাটা, হলুদ, মরিচ ও লবণ পরিমাণ মতো।

যেভাবে করবেন : চিংড়ি নারিকেল কোরা ২ চামচ, হলুদ, মরিচ, লবণ, চিনি সরষে বাটা পেঁয়াজ বাটা দিয়ে কষিয়ে রান্না করতে হবে। নামানোর আগে একটু ঘি দিয়ে কাঁচামরিচ চেরা দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার সরষে চিংড়ি।

১০। চিংড়ি তেলে ঝালে কষা

যা লাগবে : চিংড়ি মাঝারি সাইজ, লেবুর রস, সয়াসস, পেঁয়াজ কুচি ও মরিচ ফালি।

যেভাবে করব : মাঝারি সাইজের চিংড়ি খোসা ছাড়িয়ে নেব। একটা বোলো চিংড়ি ও সামান্য লেবুর রস বা সয়াসস দিয়ে মাখিয়ে রাখতে হবে। প্যানে সরিষার তেল গরম করে পেঁয়াজ ও মরিচ ফালি দিয়ে ভেজে নিয়ে তার মধ্যে চিংড়ি দিয়ে ভাজা ভাজা করে নিতে হবে। হয়ে যাবে চিংড়ির তেলে ঝালে। গরম ভাতের সঙ্গে খুব ভাল লাগবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *